টেকনাফে

হোটেল গ্রীন গার্ডেন থেকে ১১ খদ্দের-পতিতা আটক

unnamedআমান উল্লাহ আমান, টেকনাফ :

টেকনাফ পৌরসভার আবাসিক হোটেল গ্রীন গার্ডেনে অভিযান চালিয়ে হোটেলটির ভাড়াটিয়া মালিকসহ ১১ খদ্দের-পতিতাকে আটক করেছে মডেল থানা পুলিশ। ৮ নভেম্বর রবিবার দুপুরে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। মডেল থানার ওসি আতাউর রহমান খোন্দকার জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গ্রীন গার্ডেন আবাসিক হোটেলে অভিযান চালিয়ে অসামাজিক কাজের অভিযোগে হোটেলের রুম থেকে ১১ জন খদ্দের-পতিতাকে আটক করা হয়। আটককৃতদের মধ্যে হোটেল ভাড়াটিয়া মালিকসহ ৫ জন খদ্দের ও ৬ জন পতিতা রয়েছে। এরা হচ্ছে ইসলামাবাদ এলাকার মৃত কালা মিয়ার ছেলে মমতাজ মিয়া (৫৫), কেকে পাড়ার নুরুর কবিরের ছেলে ফায়েজ (২৪), মহেশখালী উপজেলার গোরকঘাটা এলাকার মোঃ আলমের ছেলে মোঃ সৈয়দ (২৭), টেকনাফের চৌধুরীর পাড়ার আবদুল করিমের ছেলে মোঃ ফারুক আহমদ (২৭), জাহালিয়া পাড়ার মোঃ ইসমাইলের ছেলে আবুল হাসেম (৩২), হ্নীলা ইউনিয়নের লেদার উত্তর পাড়ার নুর মোহাম্মদের কন্যা ফাতেমা (২০), জালিয়া পাড়ার হাবিবুর রহমানের কন্যা জোবেদা (২২), লেদার মোঃ হাছনের মেয়ে রুশন আক্তার (১৫), টেকনাফ কেকে পাড়ার খোরশেদ আলমের স্ত্রী শামশুন্নাহার (৩৫), দক্ষিন লেদার মুন্নার স্ত্রী মায়মুনা আক্তার (২০) ও মহেশখালী উপজেলার গোরকঘাটার হোসেনের স্ত্রী মুন্নী (২২)।
স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, হোটেলটির মালিক সৌদি প্রবাসী মোঃ ইলিয়াছ থেকে ভাড়া নিয়ে মমতাজ মিয়া দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন এলাকা থেকে মহিলাদের সংগ্রহ করে প্রশাসনকে ফাঁকি দিয়ে অসামাজিক কার্যকলাপ চালিয়ে আসছিল।
এমন অভিযোগ পেয়ে টেকনাফ মডেল থানা দীর্ঘদিন পর হলেও অভিযান চালিয়ে ওই ভাড়াটিয়া মালিক মমতাজ মিয়াসহ ১১ জনকে আটক করতে সক্ষম হয়। এঘটনায় হোটেল ম্যানেজার রাজা মিয়া পালিয়ে যাওয়ায় তাকে আটক করতে পারেনি পুলিশ।
আটককৃতদের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করে আদালতে প্রেরন করা হবে বলে জানিয়েছেন ওসি আতাউর রহমান খোন্দকার


শেয়ার করুন