পেকুয়ায় যুবলীগের ২৭ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে ফের মামলা

Jubolig_167654414পেকুয়া প্রতিনিধি:
পেকুয়ায় সভাপতিসহ ২৭জন যুবলীগ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে ফের চাঁদাবাজি মামলা রুজু করা হয়েছে। জায়গা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে চকরিয়া সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে গত সোমবার মামলার বাদি উপজেলার সদর ইউনিয়নের মৌলভী পাড়া এলাকার বেলাল উদ্দিনের স্ত্রী কহিনুর আকতার এ মামলাটি দায়ের করেছেন। যার নং-৯৫২/১৫। ওই মামলায় পেকুয়া উপজেলা যুবলীগ সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, সহোদর মো.আজম, কাইয়ুম, যুবলীগ সিনিয়র সহ-সভাপতি মাষ্টার মোজাম্মেল হক এমএ, সহ-সভাপতি সাবেক মেম্বার শফিউল আলম সহ যুবলীগের ২৭জন রাজনৈতিক নেতাকর্মীকে আসামি করা হয়েছে। এছাড়া যুবলীগ নেতা ও সংবাদকর্মী উজানটিয়া ইউনিয়নের পেকুয়ারচর এলাকার আকতার আহমদের ছেলে জালাল উদ্দিনকে ওই মামলায় আসামিকরা হয়। জানা গেছে আদালত সেটি নিয়মিত মামলা হিসেবে রুজু করতে পেকুয়া থানা পুলিশ বরাবর প্রেরন করেছেন। অপরদিকে যুবলীগ সভাপতিসহ রাজনৈতিক নিবেদিত ২৭নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে ফের মামলা দায়ের হওয়ায় বিভিন্ন মহলে এনিয়ে ক্ষোভ ও নিন্দার ঝড় উঠেছে। এ ব্যাপারে পেকুয়া সদর ইউনিয়ন যুবলীগের পক্ষ থেকে তাৎক্ষনিক প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করা হয়েছে। সদর সভাপতি শহিদুল ইসলাম ও সাধারন সম্পাদক আরিফুল ইসলাম মেম্বারসহ সদর যুবলীগ নেতৃবৃন্দরা মামলা দায়েরের ঘটনায় নিন্দা ও ক্ষোভ জানিয়েছেন। এক বিবৃতিতে তারা জানিয়েয়েন সেদিন পেকুয়া সদর মৌলভী পাড়া এলাকায় একদল দুর্বৃত্তরা উপজেলা যুবলীগ সভাপতি জাহাঙ্গীর আলমের মালিকানাধিন জায়গা জবর দখল করতে বহিরাগত লোকজন জড়ো করে। স্থাপনা নির্মান প্রতিহত করা হলে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে উল্টো যুবলীগ সভাপতি সহ ২৭জনের বিরুদ্ধে একজন মহিলাকে দিয়ে মামলা দায়ের করেন। সম্পুর্ন হয়রানি ও রাজনৈতিক ভাবে ঘায়েল করতে এ মামলাটি রাজনৈতিক প্রতিপক্ষরা করিয়েছে। আমরা অবিলম্বে এ ষড়যন্ত্র থেকে আমরা নেতাকর্মীদের পরিত্রান চাই।


শেয়ার করুন