পুরো ভেঙে যাবে যুক্তরাজ্য

uk_1বেসিটিএন ডেস্ক:

ব্রিটেনের ইউরোপীয় ইউনিয়নে থাকা না থাকার প্রশ্নে গণভোটের ফল প্রকাশের পর ২৮ জাতির এই সংগঠনটিই যে কেবল ভাঙতে চলেছে তা শুধু নয়, এখন ব্রিটেন নিজেই ভাঙনের হুমকিতে পড়েছে। ব্রিটেন চারটি সাংবিধানিক রাষ্ট্র ইংল্যান্ড, স্কটল্যান্ড, ওয়েলস এবং উত্তর আয়ারল্যান্ড-এর সমন্বয়ে গঠিত। গণভোটের পর সেই যুক্তরাজ্য বা ইউনাইটেড কিংডম অব গ্রেট ব্রিটেন আর টিঁকে থাকবে কিনা, তা নিয়ে সংশয় তৈরি হয়েছে।
গতকাল প্রকাশিত গণভোটের ফলাফল থেকে বোঝা যায়, স্কটল্যান্ড, উত্তর আয়ারল্যান্ড, এবং ওয়েলসেরও বেশ বড় অংশের ভোটাররা ইইউতে থাকার পক্ষে রায় দিয়েছেন। সুতরাং এখন প্রশ্ন উঠেছে, ভোটের এই ফলাফল বিপক্ষে যাওয়ায় পর তারা যুক্তরাজ্যের অংশ থাকতে রাজি হবে কিনা।
বিশেষ করে স্কটল্যান্ডে দুই বছর আগেই স্বাধীনতার প্রশ্নে এক গণভোটে ১০ শতাংশ ভোটের ব্যবধানে যুক্তরাজ্যে থাকার পক্ষের অংশ জয়ী হয়েছিল। উত্তর আয়ারল্যান্ডে বহু দশক ধরে স্বাধীন আয়ারল্যান্ড প্রজাতন্ত্রের অংশ হবার দাবিতে সশস্ত্র সংগ্রাম চলেছে। যুক্তরাজ্য ইউরোপীয় ইউনিয়নের অংশ হবার পর এ ব্যাপারটা অনেক কমে এসেছিল। তাই প্রশ্ন হলো, সেই পুরোনো দাবিগুলো এবার আবারো মাথা চাড়া দিয়ে উঠবে কিনা।
স্কটল্যান্ডের মুখ্যমন্ত্রী (ফার্স্ট মিনিস্টার) নিকোলা স্টারজন বলেছেন, তারা যুক্তরাজ্য থেকে বেরিয়ে গিয়ে স্বাধীন হবার জন্য আরো একটি গণভোট করতে আইন প্রণয়নের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। তিনি বলেন, দুই বছর আগে যে পরিস্থিতিতে প্রথম গণভোট হয়েছিল, সেই পরিস্থিতি এখন পুরোপুরি পাল্টে গেছে। বৃহস্পতিবারের গণভোটের ফলে স্কটল্যান্ডকে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে ইইউ থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। এটা আমাদের কাছে গণতান্ত্রিকভাবে গ্রহণযোগ্য নয়। তাই এখন স্বাধীনতা প্রশ্নে নতুন গণভোট প্রয়োজন। অন্যদিকে, উত্তর আয়ারল্যান্ডের জাতীয়তাবাদী দল শিন ফেইনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, আইরিশ প্রজাতন্ত্রের সাথে যুক্ত হবার প্রশ্নে একটি গণভোট করার পক্ষে এখন শক্ত যুক্তি তৈরী হয়েছে।
এসব কারণে ব্রিটেনের রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মধ্যে এই আশঙ্কা তৈরী হয়েছে, যেহেতু স্কটল্যান্ড ও উত্তর আয়ারল্যান্ডের জনগণের বিপক্ষে গেছে গণভোটের ফল, তাই তারা এখন ওই জোটে থাকতে ব্রিটেনকে ছাড়ার পথই বেছে নিতে পারে।


শেয়ার করুন