চেহারা সুন্দর হলে ভালবাসা হয় না, ভালবাসতে মন লাগে

885_382222275সিটিএন ডেস্ক:
ব্লেড দিয়ে হাত কেটে রক্ত ঝরিয়ে নবম শ্রেণির এক ছাত্রী শ্রেণিকক্ষের ব্ল্যাক বোর্ডের লিখেছে “চেহারা সুন্দর হলে ভালবাসা হয় না, ভালবাসতে মন লাগে”। একই স্কুলের দশম শ্রেণির এক ছাত্রের প্রেমের প্রস্তাবে অতীষ্ঠ হয়ে এ কথা লিখে প্রতিবাদ জানিয়েছে ওই ছাত্রী। গুরুত্বর আহত অবস্থায় ওই ছাত্রীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার হাতের তালুর ক্ষত স্থানে ১৪টি সেলাই দিয়েছেন চিকিৎসকরা।
রোববার দুপুরে চাঞ্চল্যকর এ ঘটনা ঘটে নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলার কামারপুকুর উচ্চ বিদ্যালয়ে। ঘটনাটি স্কুল কর্তৃপক্ষ ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা চালালে তা প্রকাশ হয়ে পড়ে। ফলে এ নিয়ে এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি করেছে। কামারপুকুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আনোয়ার হোসেন ঘটনাটি সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
ওই বিদ্যালয়ের একাধিক শিক্ষার্থীরা জানায়, স্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্র আরিফ হোসেন বেশ কিছুদিন ধরে নবম শ্রেণির ওই ছাত্রীকে প্রেম নিবেদন করে আসছিল। কিন্তু মেয়েটি সাড়া না দেয়ায় প্রায়ই তাকে রাস্তাঘাটে উত্ত্যক্ত করতো আরিফ। রোববার দুপুরে স্কুল ছুটি হয়ে যায়।
এ সময় আরিফ মেয়েটির সামনে গিয়ে আবারো প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে নিজের হাতের তালুতে ব্লেড চালাতে গেলে মেয়েটি বিরক্ত হয়ে ছেলেটির হাত থেকে ব্লেড কেড়ে নিয়ে নিজের হাতের তালু কেটে ক্ষত-বিক্ষত করে। এরপর শ্রেণি কক্ষের প্রবেশ করে হাতের রক্ত দিয়ে ব্ল্যাক বোর্ডে লেখে, চেহারা সুন্দর হলে ভালোবাসা হয় না, ভালোবাসতে মন লাগে।
এ ঘটনায় স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা হতবাক হয়ে যায়। পরে মেয়েটিকে দ্রুত স্থানীয় হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে তার হাতের তালুতে মোট ১৪টি সেলাই দেয়া হয়।


শেয়ার করুন