কঠোর অবস্থানে প্রশাসন

download-18সিটিএন ডেস্ক:
বিদেশি নাগরিক হত্যা, সশস্ত্র হামলা, তল্লাশি চৌকিতে দায়িত্ব পালনকালে খুন, তাজিয়া মিছিলের প্রস্তুতিকালে রাজধানীতে বোমাহামলার মতো নজিরবিহীন ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে সরকার এখন অতি সতর্কতায়। কঠোর অবস্থানে প্রশাসন।
সূত্র জানিয়েছে, রাজধানী ঢাকায় ৩০০, চট্টগ্রামে ১৫০, রাজশাহী ও খুলনায় উল্লেখযোগ্যসংখ্যক পুলিশের তল্লাশি চৌকি বসানো হয়েছে। এছাড়াও গোয়েন্দা টহলের পাশাপাশি তল্লাশি চৌকির পাশে টহল দিচ্ছে র‌্যাব। প্রত্যেক জেলায় পুলিশ সুপারকে সতর্কবার্তা পাঠানো হয়েছে। সন্ত্রাসীদের তালিকার পাশাপাশি সন্দেহভাজন ব্যক্তিদের ব্যাপারে নতুন তালিকা করা হচ্ছে। শাহজালাল, শাহপরান, ওসমানি বিমানবন্দরে কর্মরত ইমিগ্রেশন অফিসারদের পাশাপাশি প্রত্যেক ডিপার্টমেন্টের কর্তব্যরত গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের ‘বিশেষ এলার্ট’ করা হয়েছে।
আওয়ামী লীগের তিনজন মধ্যম শ্রেণির নেতা ও মন্ত্রীর সঙ্গে পৃথক কথা বলে ধারণা পাওয়া যায়Ñ একের পর এক নৈরাজ্যকর পরিস্থিতির প্রেক্ষাপটে সরকার দেশে-বিদেশে সমালোচনার মুখে। বিদেশিদের সতর্কতা, দেশের ভেতর কয়েকটি রাজনৈতিক দলের সমালোচনার জবাবে সরকারের অবস্থান কঠোর করতে হচ্ছে। যদিও এসব ঘটনা পরিকল্পিতভাবে হচ্ছে এমন তথ্যও সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগে রয়েছে। আক্রান্তকারী পুলিশ সদস্যসহ আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার সদস্যরা প্রয়োজনে গুলি করতে পারবেন। ম্যাজিস্ট্রেটের নির্দেশের অপেক্ষা করা দরকার হবে না। এখন থেকে তল্লাশি চৌকিতে কর্তব্যরতদের অস্ত্রে গুলি ভরা থাকবে। এতে পুলিশ দুর্বৃত্তদের লক্ষ্য করে দ্রুত তা ব্যবহার করতে পারবে।
গতকাল উত্তরায় দুর্বৃত্তদের হামলায় তাইওয়ানের দুই নাগরিক আহত হয়েছেন। তাদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে বৃহস্পতিবার রাতে। পুলিশ জানিয়েছে, রাজধানীর উত্তরার ১৪/এ সেক্টরের ৮ নাম্বার রোডে তাইওয়ানের নাগরিক ওয়ান লিং চি এবং তার স্ত্রী বাস করতেন। রাত পৌনে ১২টায় ৩ জন মুখোশধারী তাদের ফ্ল্যাটে প্রবেশ করে এবং লাঠি দিয়ে এলোপাতারি আঘাত করে। মুখোশধারীরা তাদের ফ্ল্যাটে থাকা সাড়ে ছয় লাখ টাকা ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। পরে পুলিশ ওই দম্পতিকে উদ্ধার করে রাজধানীর অ্যাপোলো হাসপাতালে ভর্তি করে। তাদের অবস্থা আশঙ্কামুক্ত। হামলার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে পুলিশ গাজীপুর থেকে জাহাঙ্গীর নামে একজনকে আটক করেছে।
দেশে দুই বিদেশি নিহত হওয়ার পাঁচ সপ্তাহের মধ্যে দুই বিদেশি আহত হওয়ার ঘটনা ঘটলো। গত ২৮ সেপ্টেম্বর গুলশানে ইতালির নাগরিক সিজার তাভেল্লা নিহত হন। এরপর ৩ অক্টোবর রংপুরে সন্ত্রাসীদের হাতে নিহত হন জাপানের নাগরিক হোশি কুনিও।
দুই হত্যাকাণ্ডেই আইএস দায় স্বীকার করে বলে জানায় যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সাইট ইন্টেলিজেন্স। তবে পুলিশ বাংলাদেশে আইএসের অস্তিত্বের কথা নাকচ করেছে।
ঢাকায় এক সপ্তাহ আগে দুর্বৃত্তদের হামলায় আহত প্রকাশনা সংস্থা শুদ্ধস্বরের স্বত্বাধিকারী আহমেদুর রশীদ টুটুল বলেছেন, ওই হামলা তার ব্যক্তিগত জীবনকে থমকে দিয়েছে কিন্তু তারপরও তিনি তার সংকল্পেই অটুট থাকবেন।
বিবিসিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন তার পরিবার, বন্ধু, আÍীয়স্বজনÑ সবাই আতঙ্কগ্রস্ত, তার নিরাপত্তা নিয়ে তারা শঙ্কিত। তিনি বলেন, তারা হত্যা করার জন্যেই আক্রমণ করেছিল কিন্তু পারেনি। হয়তো আবার চেষ্টা করবে।
একই দিন দুর্বৃত্তদের হামলায় নিহত হয়েছিলেন জাগৃতির প্রকাশক ফয়সাল আরেফিন দীপন।
অভিজিৎ রায়ের বই প্রকাশ করেছিল শুদ্ধস্বর। এ কারণেই গত ৩১ অক্টোবর লালমাটিয়ায় শুদ্ধস্বরের কার্যালয়ে ঢুকে আহমেদ রশীদ টুটুল এবং তার সঙ্গে থাকা ব্লগার তারেক রহিম ও রণদীপম বসুকে কুপিয়ে জখম করে তিন হামলাকারী। প্রকাশনা সংস্থা শুদ্ধস্বর থেকেই বইমেলা চলাকালে খুন হওয়া ব্লগার ও বিজ্ঞানভিত্তিক লেখক অভিজিৎ রায়ের লেখা বই প্রকাশিত হয়েছিল।
বৃহস্পতিবার সাভারের আশুলিয়ায় শিল্প পুলিশের চেকপোস্টে দুর্বৃত্তরা হামলা চালিয়ে কুপিয়ে ১ পুলিশ কনস্টেবলকে হত্যা করে। তারা আহত করে আরও ৪ পুলিশ সদস্যকে। গত ২২ অক্টোবর রাতে দায়িত্ব পালনরত অবস্থায় দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে মিরপুরের দারুস সালাম থানার সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) ইব্রাহিম মিয়া খুন হন।
এদিকে, ঢাকার চারশ বছরের ইতিহাসে এমন ঘটনা না ঘটলেও গত ২৪ অক্টোবর তাজিয়া মছিলের প্রস্তুতিকালে সন্ত্রাসী হামলায় কিশোর সাজ্জাদসহ ২ জন নিহত হওয়ার পর সরকারের দায়িত্বশীল ব্যক্তিরা হামলাকারীদের যে কোনো মূল্যে গ্রেফতারের আশ্বাস দিয়েছিলেন। কিন্তু গত ১৫ দিনেও তদন্তে এর আশানুরুপ উন্নতি হয়নি।
সাম্প্রতিককালে এ ধরনের বেশকটি খবর বেশ গুরুত্বের সঙ্গেই প্রচার করে বিশ্ব গণমাধ্যম। সরকারের দায়িত্বশীলরা মনে করেন, এসব হত্যাকাণ্ড বা সন্ত্রাস স্বাভাবিক সন্ত্রাস বা আইনশৃঙ্খলা অবনতির ঘটনার প্রমাণ দেয় না। বিশেষ কোনো মহল উদ্দেশ্যপ্রণোদিত হয়ে কাজগুলো করছেÑ এমন ধারণা প্রশাসনের উচ্চপর্যায়ের।


শেয়ার করুন