“রাডারের মাধ্যমে পূর্বাঞ্চলের সামরিক ও আকাশ নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদারে বিশেষ ভুমিকা রাখতে সক্ষম হবে”

কক্সবাজারে বিশেষ রাডার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি

12208741_1002071699831789_6771845391667143853_nএম.শাহজাহান চৌধুরী শাহীন:

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মহামান্য রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ এডভোকেট বলেছেন, সরকার বিমান বাহিনীর সাংগঠনিক উন্নয়ন এবং পেশাগত নৈপুণ্য বৃদ্ধির জন্য যুদ্ধ বিমান ও প্রয়োজনীয় যুদ্ধ উপকরন সংযোজনের প্রক্রিয়া অব্যাহত রেখেছে। আধুনিকায়নের এই ধারাবাহিকতায় ওয়াইএলসি-৬ র‌্যাডার সংযোজনের মাধ্যমে বাংলাদেশ বিমান বাহিনী দেশ ও জাতির অগ্রগতি ও নিরাপত্তায় আরো সক্রিয় অবদান রাখতে সক্ষম হবে।

রাষ্ট্রপতি বলেন, রাড়ারটির মাধ্যমে কক্সবাজারসহ দেশের পূর্বাঞ্চলের সামরিক ও আকাশ নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করার লক্ষ্যে কক্সবাজারে স্থাপন করা হয়েছে বিমানবাহিনীর বিশেষ রাডার। শহরতলীর কলাতলী দরিয়ানগরের পাহাড়ের উপর স্থাপিত এই রাডারের মাধ্যমে সহজে শত্রু পক্ষের বিমান চিহ্নিত করা যাবে।
বুধবার দুপুরে কক্সবাজারে বিমান বাহিনীর এয়ার ডিফেন্স রাডার (ওয়াই এলসি- ৬) এর অন্তর্ভুক্তি অনুষ্ঠানে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘ফোর্সেস গোল-২০৩০ বাস্তবায়নে বাংলাদেশ বিমান বাহিনী আরো একধাপ এগিয়ে যাবে। পরে তিনি রাডার স্টেশনের ফলক উন্মোচন করেন এবং এয়ার ডিফেন্স রাডার (ওয়াই এলসি-৬) ঘুরে দেখেন। এসময় বিমান বাহিনীসহ বিভিন্ন বাহিনীর পদস্থ কর্মকর্তারা, স্থানীয় সংসদ সদস্যবৃন্দ, সরকারী বিভিন্ন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বুধবার ছয় ঘণ্টার এক সংক্ষিপ্ত সফরে কক্সবাজারে আসেন রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ। তিনি সকালে হেলিকপ্টার যোগে চট্টগ্রাম শহরের হালিশহর বিমানবাহিনী ঘাঁটি থেকে কক্সবাজার বিমান বন্দরে এসে পৌঁছেন। সেখান থেকে সড়ক পথে রাডার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে যোগদেন। একইদিন বিকেলে তিনি ঢাকার উদ্দেশে কক্সবাজার ত্যাগ করেন।


শেয়ার করুন