এনজিও সংস্থাগুলো জনকল্যাণে কাজ করছে -সাংসদ কমল

ramu pic mp komol 01.11.15সোয়েব সাঈদ, রামু:
কক্সবাজার-রামু আসনের সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল বলেছেন, সরকার দেশের বিরাজমান সমস্যা আর্ন্তজাতিক অঙ্গনে তুলে ধরতে সক্ষম হওয়ায় এখন বিদেশী দাতা সংস্থাগুলো জনগুরুত্বপূর্ণখাতে বিনিয়োগ ও সহায়তা বৃদ্ধি করেছে। ফলে সরকারের পাশাপাশি দেশী-বিদেশী এনজিও সংস্থাগুলো জনকল্যাণে অতীতের চেয়ে বেশী কাজ করে যাচ্ছে। বন্যা, খরা, ঘূর্ণিঝড় সহ যে কোন ধরনের প্রাকৃতিক দূর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা অগ্রযাত্রা প্রসংশনীয় ভুমিকা পালন করে যাচ্ছে। রামুতে বন্যা ও ঘূর্ণিঝড় কোমেন এ ক্ষতিগ্রস্ত জনগোষ্ঠিকে নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাংসদ কমল এসব কথা বলেন।
গতকাল রবিবার (১ নভেম্বর) বিকাল তিনটায় রামু উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, আর্ন্তজাতিক ও জাতীয় একাধিক পুরস্কারপ্রাপ্ত উদ্যোক্তা ও সংগঠক বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা অগ্রযাত্রা’র চেয়ারম্যান নীলিমা আকতার চৌধুরী।
অগ্রযাত্রা’র নির্বাহী পরিচালক মো. হেলাল উদ্দিনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, দিশারী কনসোর্টিয়াম ম্যানেজার আলমগীর রহমান। অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন, ক্রিশ্চিয়ান এইড এর প্রতিনিধি জাহিদ ফিরোজ, রামু উপজেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি নুরুল কবির হেলাল, উপজেলা পরিষদের সংরক্ষিত আসনের মহিলা সদস্য আফসানা জেসমিন পপি, সাবেক ইউপি সদস্য ফরিদুল আলম, কক্স হিউম্যান ফাউন্ডেশনের সভাপতি সুরেশ বড়–য়া প্রমূখ। শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন, আবুল কালাম।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল ফতেখাঁরকুল ইউনিয়নের ৯টি ওয়ার্ডের বন্যা ও ঘূর্ণিঝড় কোমেন এ ক্ষতিগ্রস্ত জনগোষ্ঠির মাঝে জরুরী সহায়তা প্রকল্পের শর্তবিহীন অর্থ বিতরণ করেন। এসময় সাংসদ কমল প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্তদের উপকারভোগী নির্বাচন এবং সুশৃংখলভাবে এ প্রকল্পের অর্থ বিতরণ কর্মসূচির প্রশংসা করেন। এজন্য তিনি অগ্রযাত্রার সাথে জড়িতদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।
অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে অগ্রযাত্রা’র চেয়ারম্যান নীলিমা আকতার চৌধুরী বলেন, প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এবং সাংসদ কমলের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় রামু উপজেলায় বন্যা ও ঘূর্ণিঝড় কোমেন এ ক্ষতিগ্রস্ত জনগোষ্ঠির মাঝে জরুরী সহায়তা প্রকল্পের শর্তবিহীন অর্থ বিতরণ কর্মসূচি সফলভাবে বাস্তবায়ন হচ্ছে। অনুষ্ঠানে জনপ্রতিনিধি, প্রশাসনিক কর্মকর্তা, এনজিও ও দাতা সংস্থার প্রতিনিধি, সাংবাদিক ও সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য রামু উপজেলার চারটি ইউনিয়নে বন্যা ও ঘূর্ণিঝড় কোমেন এ ক্ষতিগ্রস্ত জনগোষ্ঠির জন্য জরুরী সহায়তা প্রকল্পের ‘শর্তবিহীন অর্থ বিতরণ কর্মসূচি’র আওতায় ২ হাজার ৫০০ জন নারী-পুরুষকে নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে। ক্রিশ্চিয়ান এইড এর সহযোগিতায় ও ইকোর অর্থায়নে এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা অগ্রযাত্রা।
জনপ্রতিনিধি ও নিজস্ব কর্মীদের মাধ্যমে মাঠ পর্যায়ে যাচাই-বাছাই করে এ প্রকল্পের উপকারভোগী চিহ্নিত করা হয়েছে। উপকারভোগীদের মধ্যে বন্যা ও ঘূর্ণিঝড় কোমেন এ ক্ষতিগ্রস্ত, ভূমিহীন, অসুস্থ, প্রতিবন্ধি, নারী প্রধান পরিবার, সংখ্যালঘু পরিবার, দুগ্ধবতী ও গর্ভবতী নারী, ৬০ বছর বয়স্ক ব্যক্তি প্রধান পরিবার, হতদরিদ্র এবং ভৌগলিকভাবে বিপদাপন্ন এলাকায় বসবাসকারি লোকজনকে অগ্রাধিকার দেয়া হয়েছে।


শেয়ার করুন