উখিয়ায় ১৫টি কমিউনিটি ক্লিনিকের স্বাস্থ্যসেবা কার্যক্রম

Community-Clinic-thereport2শফিক আজাদ, উখিয়া:
উখিয়ার গ্রামাঞ্চলের প্রত্যন্ত জনপদে বসবাসরত মানুষের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করার জন্য প্রতিষ্ঠিত ১৫টি কমিউনিটি ক্লিনিকের কার্যক্রম চলছে দায়সারাভাবে। সুষ্ট তদারকি ও অব্যবস্থাপনার অভাবে মাসের বেশির ভাগ সময় দায়িত্বরত স্বাস্থ্য কর্মীদের অনুপস্থিতি সহ সরকারিভাবে প্রদত্ত বিনামূল্যের ঔষুধ সামগ্রী না পাওয়ার কারণে এসব ক্লিনিকে রোগীরা স্বাস্থ্য সেবা পাচ্ছে না বলে অভিযোগ উঠেছে।
উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, এ উপজেলার পালংখালী ইউনিয়নের নলবনিয়া, রাজাপালং ইউনিয়নের কুতুপালং, হাতিমোরা, ডিগলিয়াপালং, বাগানের পাহাড়, উত্তর পুকুরিয়া, জালিয়াপালং ইউনিয়নের পাইন্যাশিয়া, সোনারপাড়া, হলদিয়াপালং ইউনিয়নের কুলালপাড়া, মহাজনপাড়া, দক্ষিণ হলদিয়া ও পাগলির বিল, রতœাপালং ইউনিয়নের কোটবাজার, রুহুল্লা ডেবা, মাতবর পাড়া ও ভালুকিয়া সহ ৫ ইউনিয়নের ১৫টি কমিউনিটি ক্লিনিকের নামমাত্র স্বাস্থ্য সেবা প্রদানের একাধিক অভিযোগ রয়েছে। এসব ক্লিনিকে প্রতি সপ্তাহে ৩ দিন স্বাস্থ্য সহকারী ও ৩ দিন এফডব্লিউ (পরিবার কল্যাণ কর্মী) ও সপ্তাহের ৬ দিন হেলথ কেয়ার প্রোভাইডারগণ দায়িত্ব পালনের বাধ্যবাধকতা থাকলেও সংশ্লিষ্টরা তা মানছে না। গ্রামবাসীর অভিযোগ, এসব ক্লিনিকগুলো সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত খোলা রেখে স্বাস্থ্যসেবা প্রদানের নিয়ম থাকলেও কর্তব্যরত চিকিৎসকরা বেলা ১২টায় ক্লিনিক বন্ধ করে চলে যাওয়ার ফলে প্রতিনিয়ত অসংখ্য হতদরিদ্র পরিবারের রোগী ক্লিনিকে এসে ফেরত যাচ্ছে।
প্রাপ্ত অভিযোগের ভিত্তিতে বেশ কয়েকটি ক্লিনিক ঘুরে স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কেউ ক্লিনিকগুলো তদারকি না করার কারণে মাসের বেশির ভাগ সময়ই ক্লিনিকগুলো বন্ধ থাকে। আর খোলা থাকলেও চিকিৎসক থাকে না। একাধিক লোকজন জানান, মাঝেমধ্যে চিকিৎসক পাওয়া গেলেও ঔষুধ পাওয়া যায়না। ব্যবস্থা পত্র দিয়ে রোগীদের বিদায় করা হলেও আর্থিক অভাবে অনেকেই ফার্মেসীর দ্বারস্থ হতে পারছে না। অথচ, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স তত্ত্বাবধায়কের সুপারিশক্রমে এসব ক্লিনিকে ৩০ প্রকার রোগের ঔষুধ সরবরাহ দেওয়া হচ্ছে বলে প্রতীয়মান হয়। এ ব্যাপারে ভারপ্রাপ্ত উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ রবিউর রহমান রবির সাথে বেশ কয়েকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করে তাকে পাওয়া যায়নি। তবে নাম প্রকাশ না করার শর্তে হাসপাতালের এক কর্মকর্তা জানান, বর্তমানে ঔষুধ সরবরাহ ক্ষেত্রে সংকট দেখা দেওয়ায় অধিকাংশ ক্লিনিকে ঔষুধ সংকটের সৃষ্টি হয়েছে।


শেয়ার করুন