হোটেল মালিক, ম্যানেজারসহ আটক ৬

পতিতা হোটেল “রাজমনি”তে ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের হানা

dscf7754নিজস্ব প্রতিবেদক :
গত কাল কক্সবাজার শহরের প্রধান সড়কস্থ ফজল মার্কেটের সামনে রাজমনি আবাসিক হোটেলে দীর্ঘদিন ধরে দেহ ব্যবসা, মাদক সেবন, ইয়াবা ব্যবসাসহ নানা ধরনের অপকর্ম চলে আসছে। চারপাশে মার্কেট, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান আর মসজিদ সংলগ্ন এ এলাকার দীর্ঘদিন এ অপকর্ম চলায় অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে ধর্মপ্রান মুসল্লী ও স্থানীয় জনগণ। এর ফলে এলাকার পরিবেশ নষ্টের পাশাপাশি ধ্বংস হচ্ছে যুব সমাজ।
এ অবস্থায় স্থানীয়ভাবে তাদেরকে একাধিকবার বারন করা হয়েছে। সর্বশেষ অসামাজিক কার্যকলাপ প্রতিরোধ কমিটি সভাপতি ডাক্তার মো: আমিন ও ব্রাদার্স ব্যবসায়ী কল্যান সমিতির আমিনুল ইসলাম হাসান, শ্রমিক নেতা এম.ইউ বাহাদুর, জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মারুফ ইবনে হোসাইন ইতিপূর্বে অনেকবার সতর্ক করা হয়েছিল কিন্তু হোটেল মালিক মোহাম্মদ আলম কোনভাবেই পাত্তা দেয়নাই এ বিষয়টিকে। বরং বাড়িয়ে দিয়েছে আরো অপকর্ম।
তাই আসন্ন রমজানের পবিত্রতাকে কেন্দ্র করে এবং এলাকার পরিবেশ স্বাভাবিক রাখতে পুলিশের সহযোগিতায় গতকাল মাগরিবের নামাজের পর স্থানীয় প্রায় দুই’শতাধিক মানুষ ওই হোটেলে অভিযান চালায়। অভিযানে হোটেল থেকে হাতে-নাতে ৪জন পতিতাকে পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়। আর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ওই হোটেলের মালিক মোহাম্মদ আলম ও ম্যানজোরকে কক্সবাজার সদর থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।
পরে গণমাধ্যমকর্মি ও এলাকাবাসীর সহযোগিতায় কক্সবাজার সদর থানার এসআই রফিকুল ইসলাম, এসআই মনির ও এএসআই জাহাঙ্গীরের নেতৃত্বে একদল পুলিশ এ অভিযান চালায়।
এ অভিযানে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছে স্থানীয় জনগণ। অভিযান শেষে ওই হোটেলের সম্মুখেই অসামাজিক কার্যকলাপ প্রতিরোধ কমিটির প্রচার সম্পাদক এমইউ বাহাদুর এর পরিচালনায় তাৎক্ষনাত এক প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিবাদ সভায় বক্তারা বলেন, দীর্ঘদিন এ হোটেলের অনৈতিক কর্মকান্ডের ফলে এলাকার পরিবেশ নষ্ট হচ্ছিল। তাই বাধ্য হয়ে এ অভিযান চালানো হয়েছে। আর সকলের কাছে অনুরোধ করা হয়েছে এ এলাকার ভাবমূর্তি অক্ষুন্ন রাখতে কোন ধরনের অনৈতিক কর্মকান্ড করা যাবেনা। বক্তারা পার্শে¦াক্ত আরো অনেক হোটেলে দীর্ঘদিন ধরে ঢুকেন এর মাধ্যমে এধরনের অবৈধ কর্মকান্ড চলে আসছে আগামি কয়েকদিনের মধ্যে এসব অপরাধ কর্মকান্ড বন্ধ না করলে জনগণকে সাথে নিয়ে প্রতিরোধ গড়ে তোলা হবে।
প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন, অসামাজিক কার্যকলাপ প্রতিরোধ কমিটি সভাপতি ডাক্তার মো: আমিন, সাধারণ সম্পাদক সাবেক কাউন্সিলর আবু জাফর ছিদ্দিকী, ব্রাদার্স ব্যবসায়ী কল্যান সমিতির সভাপতি আমিনুল ইসলাম হাসান, বাজারঘাটা জামে মসজিদের খতিব মাওলানা কামাল উদ্দিন, জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মারুফ ইবনে হোসাইন বক্তব্য রাখেন।


শেয়ার করুন


একই রকম আরও কিছু পোস্ট