এবার ফেসবুক লাইভে কন্যাকে হত্যার পর বাবার

অনলাইন ডেস্ক :
আজকাল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ব্যবহারকারীরা হরহামেশায় ফেসবুক লাইভে এসে বন্ধু ও ভক্তদের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয় শেয়ার করে থাকেন। যেখানে তারা নিজের জীবনের আনন্দ-আহ্লাদ ও দুঃখ-কষ্ট শেয়ার করেন।

তাই বলে নিজের কন্যাকে হত্যার পর বাবার আত্মহত্যার মতো এমন বীভৎস কাণ্ড ফেসবুক লাইভে করা হবে। সম্ভবত এমন ঘটনা এবারই প্রথম। যা ঘটেছে থ্যাইল্যান্ডে।

দেশটির ফুকেত শহরে গত সোমবার ২১ বছর বয়সী এক তরুণ পিতা তার মেয়েকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে হত্যা করেন। পরে তিনি নিজেও ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করেন। তবে নিষ্ঠুর এ বাবার পরিচয় প্রকাশ করা হয়নি।

ওই তরুণ বাবা তার স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়া করে এই কাণ্ড ঘটিয়েছেন বলে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়। এমন ঘটনায় তোলপাড় হয়েছে গোটা থাইল্যান্ড। ফেসবুক থেকে ইউটিউবসহ বিভিন্ন ওয়েবসাইটে ছড়িয়ে পড়েছে সেই ভিডিও।

ওই তরুণের আত্মীয়-স্বজনরা ভিডিওটি দেখে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে দু’জনের মরদেহ উদ্বার করে স্থানীয় হাসপাতালে পাঠায়। পরে সেখান থেকে তরুণের স্বজন ও স্ত্রীর কাছে মরদেহ দু’টি হস্তান্তর করা হয়।

এ ঘটনায় থাইল্যান্ডের ডিজিটাল অর্থনীতি মন্ত্রণালয় ফেসবুক কর্তৃপক্ষকে ভিডিওটি ডিলিট করার আহ্বান জানায়। পরে ফেসবুক আত্মহত্যাকারীর স্বজনদের প্রতি সমবেদনা জানায় এবং সম্পর্শকাতর ওই ভিডিওটি ডিলিট করে দেয়।

এর আগে গত জুন ও জুলাই মাসে যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগো এবং মিনিয়াপলিসে গুলি করে হত্যার দু’টি ঘটনা ফেসবুক লাইভে প্রকাশ হয়। সে ঘটনা নিয়েও বেশ আলোচনা হয় অনলাইন দুনিয়ায়।


শেয়ার করুন


একই রকম আরও কিছু পোস্ট