শিক্ষা সফরে যেতে লাগবে অনুমতি

সংশ্লিষ্ট সরকারি কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া শিক্ষার্থীদের নিয়ে শিক্ষা সফর, পিকনিক বা দল বেঁধে ভ্রমণে বারণ করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

দুর্ঘটনা এড়াতে এই নির্দেশনা দিয়ে রোববার জারি করা পরিপত্রে ভ্রমণের আগে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোকেও জানিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

যশোরে গত ২৫ জানুয়ারি পিকনিকের একটি বাস খাদে পড়ে শিক্ষকসহ পাঁচজন নিহত হন।

পরিপত্রে বলা হয়েছে, সম্প্রতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে দেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আয়োজনে ছাত্র-ছাত্রীদের শিক্ষা সফর, পিকনিক বা কোনো উৎসব অথবা এ জাতীয় কোনো আনন্দ ভ্রমণে যাতায়াতের সময় পরিবহনজনিত দুর্ঘটনাসহ বিভিন্ন ধরনের দুর্ঘটনা সংঘটিত হচ্ছে।

“এ ধরনের অনাকাঙ্ক্ষিত দুর্ঘটনা পরিহারের জন্য অধিকতর সতর্কতা অবলম্বন করা প্রয়োজন।”

পরিপত্র অনুযায়ী, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে আবশ্যিকভাবে শিক্ষার্থীদের নিয়ে কোনো সফরে যাওয়ার আগে জেলা পর্যায়ে হলে সংশ্লিষ্ট জেলার প্রশাসক (ডিসি) আর উপজেলা পর্যায়ে হলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কাছ থেকে অনুমতি নিতে হবে।

কোনো সফরের অনুমতি দেওয়ার ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের পরিবহনের জন্য ব্যবহৃত গাড়ির ফিটনেস এবং চালকের ড্রাইভিং লাইসেন্স আছে কি না তা ডিসি ও ইউএনওদের নিশ্চিত করতে হবে।

সফরে যাওয়ার আগে শিক্ষার্থীদের ভ্রমণের স্থান সম্পর্কে জানানোর নির্দেশনা দিয়ে পরিপত্রে বলা হয়েছে, ভ্রমণে যাওয়ার আগে শিক্ষার্থীর অভিভাবকের কাছ থেকে সম্মতিপত্র নিতে হবে।

শিক্ষার্থীদের নিয়ে ভ্রমণে বের হলে সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এক বা একাধিক শিক্ষককে সঙ্গে থাকার নির্দেশনা দিয়ে মন্ত্রণালয় বলছে, চালক যাতে গতি নিয়ন্ত্রণে রেখে সাবধানতার সঙ্গে গাড়ি চালান সে বিষয়ে তাদের খেয়াল রাখতে হবে।

ভ্রমণের জন্য নির্ধারিত স্থানে যাওয়ার আগে স্থানীয় প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনকে আনুষ্ঠানিকভাবে অবহিত করতেও নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

স্বরাষ্ট্র এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়, মহাপুলিশ পরিদর্শক, ইউজিসি চেয়ারম্যান, সকল বিভাগীয় কমিশনার, শিক্ষা অধিদপ্তরগুলোর মহাপরিচালক, সব বোর্ড চেয়ারম্যান, ডিসি, পুলিশ সুপার এবং ইউএনওদের পরিপত্রের অনুলিপি পাঠানো হয়েছে।

——বিডিনিউজ

 


শেয়ার করুন


একই রকম আরও কিছু পোস্ট