এসএসসি: প্রথম দিন অনুপস্থিত ৮৫২০, বহিষ্কার ১৬

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার প্রথম দিন বৃহস্পতিবার সারাদেশে ৮ হাজার ৫২০ জন পরীক্ষার্থী অনুপস্থিত ছিল; পরীক্ষায় নকলের দায়ে বহিষ্কার হয়েছে ১৬ শিক্ষার্থী।

প্রথম দিনের পরীক্ষা শেষে আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব-কমিটির সভাপতি অধ্যাপক মাহাবুবুর রহমান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

আন্তঃশিক্ষা বোর্ড পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক উপ-কমিটির আহ্বায়ক তপন কুমার সরকার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, এসএসসিতে সর্বোচ্চ চারটি পত্রে ফেল করলে ওইসব বিষয়ে পরের বছর পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ পায় শিক্ষার্থীরা।

বাংলাদেশের ৩ হাজার ২৩৬টি কেন্দ্রে বৃহস্পতিবার থেকে একযোগে শুরু হয়েছে এসএসসি ও সমামানের পরীক্ষা; যাতে অংশ নিচ্ছে ১৭ লাখ ৮৬ হাজার ৬১৩ জন শিক্ষার্থী।

প্রথম দিন সকাল ১০টা থেকে এসএসসিতে বাংলা (আবশ্যিক) প্রথম পত্র, সহজ বাংলা প্রথম পত্র এবং বাংলা ভাষা ও বাংলাদেশের সংস্কৃতি প্রথম পত্রের পরীক্ষা হয়েছে।

এসএসসি পরীক্ষা শুরুর দিন বৃহস্পতিবার ঢাকার সরকারি ল্যাবরেটরি উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র পরিদর্শনের পর বাইরে অপেক্ষায় থাকা অভিভাবকদের সঙ্গে কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক
এসএসসি পরীক্ষা শুরুর দিন বৃহস্পতিবার ঢাকার সরকারি ল্যাবরেটরি উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র পরিদর্শনের পর বাইরে অপেক্ষায় থাকা অভিভাবকদের সঙ্গে কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক

এছাড়া মাদ্রাসা বোর্ডের অধীনে দাখিলে কুরআন মাজিদ ও তাজবিদ এবং কারিগরি বোর্ডের অধীনে এসএসসি ভোকেশনালে বাংলা-২ (১৯২১) আর দাখিল ভোকেশনালে নতুন সিলেবাসে বাংলা-২ (১৭২১) সৃজনশীল ও পুরাতন সিলেবাসে বাংলা-২ (১৭২১) সৃজনশীল বিষয়ের পরীক্ষা দিয়েছে শিক্ষার্থীরা।

প্রথম দিনের পরীক্ষায় ঢাকা বোর্ডে ১ হাজার ২৩৯ জন, রাজশাহীতে ৪৩১ জন, কুমিল্লায় ৭১৬ জন, যশোরে ৪৩২ জন, চট্টগ্রামে ৩২৫ জন, সিলেটে ২৬৫, বরিশালে ২৯৪ এবং দিনাজপুর বোর্ডে ৩৬৯ জন পরীক্ষার্থী অনুপস্থিত ছিল।

এছাড়া মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডে ৩ হাজার ২১২ জন এবং কারিগরি বোর্ডে ১ হাজার ২৩৭ পরীক্ষার্থী অনুপস্থিত ছিল বলে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে।

কারিগরি বোর্ডে ১০ জন, মাদ্রাসা বোর্ডে ৫ জন এবং ঢাকা বোর্ডে একজন শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

কেন্দ্র সচিবকে অব্যাহতি

দায়িত্বে অবহেলার জন্য ঢাকার ন্যাশনাল বাংলা উচ্চ বিদ্যালয়ের কেন্দ্র সচিবকে অব্যাহতি দিয়ে নতুন এক শিক্ষককে ওই দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের এক নোটিসে বলা হয়েছে, নির্ধারিত সময়ের ১০ মিনিট পরে পরীক্ষার প্রশ্ন বিতরণ এবং অনিয়মিত পরীক্ষার্থীদের নিয়মিত শিক্ষার্থীদের প্রশ্নে পরীক্ষা নেওয়ায় ওই কেন্দ্র সচিবকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

অব্যাহতি দেওয়া কেন্দ্র সচিবের নাম, পরিচয় প্রকাশ করেনি শিক্ষা বোর্ড।

ন্যাশনাল বাংলা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষককে এই কলেজের এসএসসির কেন্দ্র সচিবের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।


শেয়ার করুন


একই রকম আরও কিছু পোস্ট